ওয়েবসাইট তৈরী করে আয় করতে চাচ্ছেন? তাহলে তাড়াহুড়ো করে কিছু করার আগে এই বিষয়গুলো জেনে নিন। - HintsInfo.Com
Breaking News
Home / Web Design & Development / ওয়েবসাইট তৈরী করে আয় করতে চাচ্ছেন? তাহলে তাড়াহুড়ো করে কিছু করার আগে এই বিষয়গুলো জেনে নিন।

ওয়েবসাইট তৈরী করে আয় করতে চাচ্ছেন? তাহলে তাড়াহুড়ো করে কিছু করার আগে এই বিষয়গুলো জেনে নিন।

ওয়েবসাইট তৈরী করে আয় করার চিন্তা অনেকেই করে থাকে। তবে এর জন্য অনেক কিছু বিবেচনার বিষয় আছে। অনেকেই এটিকে খুব সহজ মনে করে থাকে। অনেকে মনে করে, ওয়েবসাইট তৈরী করা হয়ে গেলে শুধু পোষ্ট দিব, মানুষ ভিজিট করবে আর আমার পকেটে টাকা আসবে। এটা যদি আপনার চিন্তা-ভাবনা করে থাকেন তাহলে আমি বলবো আপনার ধারোনাটি সম্পূর্ণ ভুল।

ওয়েবসাইট তৈরী করলেই আয় করা যাবে আসলে বিষয়টি মোটেই তেমন নয়। ওয়েবসাইট তৈরী করার আগে আপনাকে অবশ্যই কিছু  বিষয় মাথায় রাখতে হবে। যেমনঃ

  • আপনার ওয়েবসাইট মানুষ কেন ভিজিট করবে?
  • অন্যদের ওয়েবসাইট থেকে ব্যাতিক্রমী কি থাকবে আপনার ওয়েবসাইটে?
  • কি কারনে মানুষ অন্য ওয়েবসাইট ছেড়ে আপনার ওয়েবসাইটে আসবে?
  • আপনার ভিজিটর কি তৈরী করা আছে?
  • নাকি নতুন করে ভিজিটর তৈরী করতে হবে।

এ ধরনের আরও অনেক প্রশ্ন আছে।

আপনি হয়ত ১ হাজার থেকে ২ হাজার টাকা খরচ করে একটি ডেমেইন ক্রয় ও হোষ্টিং করে নিতে পারবেন এবং ৫ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা খরচ করে একটি ওয়েবসাইটও তৈরী করিয়ে নিতে পারবেন। কিন্তু তার মান কেমন হবে সেদিকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। খরচ কম হলে মান খারাপ হতে পারে, আর খরচ বেশি হলে মান ভাল হতে পারে। আবার আপনার ওয়েবসাইট কেমন কন্টেন্ট থাকবে বা লেখা দিবেন সেটাও একটা বিবেচ্য বিষয়।

ওয়েবসাইটের ভাষাঃ
ওয়েবসাইটটি কি আপনি বাংলায় তৈরী করবেন? নাকি ইংরেজিতে? যদি বাংলায় তৈরী করেন তবে হয়ত সহজে কন্টেন্ট লিখতে পারবেন? আর যদি ইংরেজীতে করেন, তাহলে কিন্তু ইংরেজী না জানলে সেটা খুবই কঠিন হবে।

ভিজিটরের ধরণঃ
আপনার ওয়েবসাইটের কি ধরণের ভিজিটর থাকবে ওয়েবসাইট তৈরী করার আগে অবশ্যই এই বিষয়ে বিবেচনার করতে হবে। আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটর শুধু বাংলাদেশ ভিত্তিক হবে নাকি ওয়ার্ল্ডওয়াইড হবে। ভিজিটর যদি শুধু বাংলাদেশ ভিত্তিক হয় তবে ওয়েবসাইটটি বাংলা কনটেন্ট নিয়ে তৈরী করতে পারেন। আর যদি ওয়াল্ডওয়াইড হয় তবে ইংরেজীতে তৈরী করা ছাড়া উপায় নেই।

এরপর আসুন আয়ের বিষয়ঃ
ওয়েবসাইট থেকে আয় করার সবচেয়ে ভালো উপায় হলো গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে। কিন্তু ওয়েবসাইট তৈরী করে আয় করার বিষয়টি সম্পূর্ণ নির্ভর করবে আপনার ভিজিটরের ভিজিটরের উপর। গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন ভিন্ন উপায়ে পেতে পারেন। গুগল এডসেন্স নিয়ে আমাদের সাইটে অনেক পোস্ট আছে। (দরকার হলে সেগুলো দেখে নিতে পারেন)। তাই গুগল এডসেন্স নিয়ে আলোচনা করছিনা। তবে গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন ছাড়া bidvertiser.com, adcash.com কিংবা chitika.com এর মতো কিছু বিদেশি বিজ্ঞাপনী সংস্থার বিজ্ঞাপন সহজে পেতে পারেন এবং সেগুলোর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই আয় করতে পারবেন।এছাড়া বাংলাদেশী বিজ্ঞাপনী সংস্থা green-red.com এর বিজ্ঞাপনও পেতে পারেন, তবে গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপনের চাইতে এগুলো থেকে আয় কিন্তু বেশ খানিকটা কম হবে। বাংলাদেশী বিজ্ঞাপন দ্বারা যা আয় করবেন, তা ওয়েবসাইট মেনটেইনেন্স ও বার্ষিক ডোমেইন নেম ও হোষ্টিং এর ফি দেওয়ার পর লাভ খুব বেশি থাকবে না। তাই ইউনিক ও কোয়ালিটি কন্টেন্ট নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করুন যাতে খুব সহযেই গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন পেতে পারেন।

মূলকথা হলো, ভিজিটর নেই তো আয় নেই।  সুতরাং এবার চিন্তা করে সিদ্ধান্ত নিন। এবং এই বিষয়ে যদি আপনার কোন প্রশ্ন থাকে বা কোন কিছু জানার থাকে তাহলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

About NuRe ALam

Check Also

ডোমেইন ও হোষ্টিং কেনার আগে যে ১০টি বিষয় অবশ্যই মাথায় রাখবেন!

ব্যক্তিগত ব্লগ বা কোম্পানির ওয়েবসাইট যাই তৈরি করেন না কেন ডোমেইন হোষ্টিং আপনাকে ব্যবহার করতেই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *